Home » শীর্ষবার্তা » খুলনা নগরের সব তোরণ ১৫ দিনের মধ্যে অপসারণ
f

খুলনা নগরের সব তোরণ ১৫ দিনের মধ্যে অপসারণ

খুলনাকে একটি পরিচ্ছন্ন নগর হিসেবে গড়ে তুলতে খুলনা সিটি করপোরেশন আগামী ১৫ দিনের মধ্যে সব প্যানা ও তোরণ অপসারণ করবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ছাড়া সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত শহরে ট্রাক প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা কঠোরভাবে মনিটরিং করা হবে বলেও সিদ্ধান্ত হয়।

গত শনিবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা এবং সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির মাসিক সভায় এসব সিদ্ধান্ত হয়। খুলনা জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসান এতে সভাপতিত্ব করেন।

সভায় আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উদ্‌যাপন নির্বিঘ্ন করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গৃহীত পদক্ষেপ, স্কুল ও কলেজ শিক্ষার্থীদের মধ্যে ইয়াবা আসক্তি, কোচিং–বাণিজ্য, হাসপাতালগুলোতে দালাল চক্রের উপদ্রব, নগরে অবৈধ যান চলাচল, হকার্স উচ্ছেদসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়।

সভায় খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, পুলিশ সুপার, উপজেলা চেয়ারম্যান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ কমিটির অন্যান্য সদস্য অংশ নেন।

আসন্ন দুর্গাপূজা নির্বিঘ্ন করতে পুলিশ সুপার বিভিন্ন পূজামণ্ডপে সিসি ক্যামেরা স্থাপন এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি পূজা উদ্‌যাপন কমিটির একটি স্বেচ্ছাসেবক টিম গঠনের পরামর্শ দেন। এ সময় জেলা প্রশাসক ধর্মীয় সংবেদনশীল বিষয়ে সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে সংবাদকর্মীদের আরও সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

মাদক–সংক্রান্ত আলোচনায় প্রেসক্লাবের সভাপতি বলেন, মাদকের মামলা বৃদ্ধি পেলেও মাদক ব্যবসার মূল হোতারা ধরা পড়ছে না। রাজনৈতিক নেতারা যদি সদিচ্ছা পোষণ না করেন, তবে কেবল পুলিশ দিয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, ‘খুলনার সার্বিক আইন পরিস্থিতি ভালো আছে; কিন্তু জনগণের ভোগান্তি হচ্ছে, এ রকম জায়গাগুলোতে আমাদের বেশি নজর দিতে হবে।’ গৃহীত সিদ্ধান্তগুলো যথাযথভাবে বাস্তবায়নে তিনি সবার প্রতি আহ্বান জানান।

জেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সভায় জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরও সক্রিয় ভূমিকা রাখার আহ্বান জানানো হয়। মিয়ানমারের রোহিঙ্গা ইস্যুকে কেন্দ্র করে যেন জঙ্গিবাদ সৃষ্টির ক্ষেত্র তৈরি না হয়, সেদিকে সবাইকে সচেতন থাকার পরামর্শ দেন জেলা প্রশাসক।

সভায় আইনশৃঙ্খলা প্রতিবেদনে জানানো হয়, খুলনা নগরের আটটি থানায় গত আগস্ট মাসে ১টি খুন, ২টি ধর্ষণ, ১৭৫টি মাদক দ্রব্যসহ মোট ২৩০টি মামলা হয়েছে। গত জুলাই মাসে এ সংখ্যা ছিল ২৪৭।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ee

হাঁকডাক দিয়ে ইলিশ বিক্রি

Sharing is caring!FacebookTwitterGoogle+Pinterestপটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলায় রাবনাবাদ নদ ও বঙ্গোপসাগরে জেলেদের জালে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে। ...