Home » শিক্ষাঙ্গন » ব্র্যাকের শিক্ষার্থীদের নদী জাদুঘর প্রকল্প
1505586888

ব্র্যাকের শিক্ষার্থীদের নদী জাদুঘর প্রকল্প

প্রবহমান নদী প্রকৃতির গল্প বলে, মানুষের গল্প বলে, ভূগোলের গল্প বলে; কিন্তু উন্নয়নের নামে গত তিন দশক ধরে দেশের নদী-নালা, খাল-বিল ভরাট করে ঘরবাড়ি বানানো হচ্ছে। নদী-নালাকে কলকারখানার অপরিশোধিত বর্জ্য ফেলার জায়গা হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। বাংলাদেশের নদী দূষণ আমাদের দেখিয়েছে উন্নয়নের অন্ধকার দিকটি। এই পরিপ্রেক্ষিতে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য অনুষদের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র-ছাত্রীরা নদী সচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে চট্টগ্রামের পুরোনো শহরে কর্ণফুলী নদীর ধারে একটি মিউজিয়াম করার পরিকল্পনা করেছেন।

নদী-নালার ইতিহাস, ভূগোল এবং অর্থনীতি বিভিন্ন প্রদর্শনীর মাধ্যমে দেখানোর পাশাপাশি মিউজিয়ামটির স্থাপত্য নকশা দর্শকদের মনে করিয়ে দেবে বাংলার জল ও স্থল সংরক্ষণ করার দায়িত্বটি। স্থপতি অধ্যাপক আদনান মোর্শেদ এবং আবুল ফজল মাহমুদুন নবীর নির্দেশনায় ছয়টি শিক্ষার্থী গ্রুপের গবেষণা, নান্দনিকতা এবং গভীর নদীপ্রেম ও সচেতনতাকে এক করে এই মিউজিয়ামের ধারণাটি তৈরি হয়েছে।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের ‘নদী ও খাল বিষয়ক নকশা’ প্রদর্শনীতে তুলে ধরা হয়েছে এই নদী জাদুঘর প্রকল্পটি। ধানমন্ডির আলিয়স ফ্রসেজে গতকাল শনিবার বিকালে প্রধান অতিথি হিসাবে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট স্থপতি অধ্যাপক সামসুল ওয়ারেস। বিশেষ অতিথি ছিলেন স্প্যানিশ দূতাবাসের চার্জ দ্য এফেয়ার্স আলেহান্দ্রা লোপেজ গারসিয়া।

প্রদর্শনীটি চলবে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। শুক্রবার ও শনিবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা এবং বিকাল ৫টা থেকে রাত ৮টা এবং সোম ও মঙ্গলবার বিকাল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত প্রদর্শনী খোলা থাকবে। রবিবার সাপ্তাহিক বন্ধ।

নিভৃত প্রাণের গান: এক আয়োজনে উপস্থাপিত হলো বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথের গান ও কবিতায় সাজানো যুগলবন্দী পরিবেশনা। কখনো সুরের মায়াজালে আবার কখনো বা কবিতার শিল্পিত উচ্চারণে মুগ্ধ হলেন শ্রোতা-দর্শক। শনিবার সন্ধ্যায় ছায়ানট সংস্কৃতি ভবন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হলো ‘নিভৃত প্রাণের গান’ শীর্ষক এ আয়োজন। ঢাকার পঞ্চভাস্কর ও লন্ডনের আনন্দধারা আয়োজিত অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রসংগীত পরিবেশন করেন ইমতিয়াজ আহমেদ। রবীন্দ্র রচনা থেকে পাঠ ও আবৃত্তি  করেন ভাস্বর বন্দ্যোপাধ্যায়।

রবীন্দ্রনাথ ও অজিত রায়ের গান: কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত গানের সঙ্গে পরিবেশিত হলো সুরকার অজিত রায়ের সুরারোপিত গান। শনিবার শিল্পকলা একাডেমির সংগীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে এ সংগীতসন্ধ্যার আয়োজন করে সংগীত সংগঠন সমন্বয় পরিষদ। পরিবেশনায় অংশ নেয় অভ্যুদয় সংগীত অঙ্গনের শিল্পীরা।

মঞ্চায়িত হলো ‘জেরা’: মুক্তিযুদ্ধে নারীর প্রতি অমানবিকতার চিত্র উঠে এসেছে ‘জেরা’ নাটকে। মিসরীয় নাট্যকার ফরিদ কামিল রচিত ‘দ্য ইন্টারোগেশন’ অবলম্বনে প্রযোজনাটির বাংলা রূপান্তর করেছেন তারিক আনাম খান। নির্দেশনা দিয়েছেন ইউসুফ হাসান অর্ক। শনিবার সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটার হলে মঞ্চস্থ হলো জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগ পরিবেশিত প্রযোজনাটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

rupa_58090_1505586223

দোষীদের শাস্তির দাবিতে রুপার সহপাঠীদের মানববন্ধন

Sharing is caring!FacebookTwitterGoogle+Pinterestচলন্ত বাসে গণধর্ষণ ও নৃশংসভাবে হত্যার শিকার আইডিয়াল ল’ কলেজের ছাত্রী জাকিয়া সুলতানা ...