Home » খেলাধুলা » মেয়েদের টেনিসে ১ নম্বরের লড়াই

মেয়েদের টেনিসে ১ নম্বরের লড়াই

প্লিসকোভাকে (বাঁয়ে) সরিয়ে এক নম্বর হয়ে যেতে পারেন হালেপ, কারবার, সভিতোলোনা ও ওজনিয়াকির মধ্যে যে কেউ২০১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৭ মে—এই নয় মাসেই তিন-তিনবার টেনিস র‍্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বরে উঠেছেন অ্যাঞ্জেলিক কারবার। সর্বশেষ প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে জার্মান এই টেনিস তারকার অবস্থান তিনে। শীর্ষে কোনো গ্র্যান্ড স্লাম জিততে না পারা চেক প্রজাতন্ত্রের ক্যারোলিনা প্লিসকোভা!

এ থেকেই পরিষ্কার—মেয়েদের টেনিসে এক নম্বরের লড়াই এখন ‘মিউজিক্যাল চেয়ার’ খেলা! আর সেরেনা উইলিয়ামসের অনুপস্থিতিতে এই খেলায় প্লিসকোভা, রোমানিয়ার সিমোনা হালেপ, ইউক্রেনের এলিনা সভিতোলিনার সঙ্গে আছেন জার্মানির কারবার এবং ডেনমার্কের ক্যারোলিন ওজনিয়াকিও। গত সোমবার থেকে শুরু হয়েছে ডব্লুটিএ সিনসিনাটি ওপেন। এই এক টুর্নামেন্টে যে কারও ভাগ্য খুলে যেতে পারে! র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানে নিজেকে আরও শক্তপোক্ত করতে পারেন প্লিসকোভা। আবার শীর্ষে উঠে আসতে পারেন বাকি চারজনের যে কেউই!

গত এপ্রিলে গর্ভে সন্তান আসার খবরটি দিয়ে টেনিস থেকে সাময়িকভাবে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন সেরেনা উইলিয়ামস। তারপর থেকেই মেয়েদের টেনিসে এক নম্বরের লড়াইটা বেশ উন্মুক্ত হয়ে গেছে। এই সময়ে এক নম্বরের রাজত্ব ‘হাতবদল’ হয়েছে চারবার। ধারাবাহিক কেউ ভালো না খেলায় অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের পর কোর্টে আর না খেললেও ২৪ এপ্রিল থেকে ১৪ মে—তিন সপ্তাহের জন্য আবারও র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে ফিরেছিলেন সেরেনা। তবে সর্বশেষ প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে ২৩টি গ্র্যান্ড স্লামের মালিক এই কিংবদন্তির অবস্থান ১৫। লম্বা একটা সময় টেনিসে না থাকায় তাঁর র‍্যাঙ্কিং পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ২৮১০। আবার কোর্টে না ফেরা পর্যন্ত তাই সেরেনার এক নম্বরে ফেরার সম্ভাবনা নেই। কিন্তু সর্বশেষ র‍্যাঙ্কিংয়ের এক থেকে পাঁচে থাকা প্লিসকোভা (৬৬৪০), হালেপ (৬১৫০), কারবার (৫৭৩০), সভিতোলিনা (৫৬৫০) ও ওজনিয়াকির (৫৩৪০) র‍্যাঙ্কিং পয়েন্টের ব্যবধান এতই কম যে একটা টুর্নামেন্টেই তাঁদের যে কেউ এক নম্বর হয়ে যেতে পারেন।

বাকি চারজনের চেয়ে সিনসিনাটি ওপেনে প্লিসকোভার ওপর চাপটা একটু বেশিই থাকবে। একে তো র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তারকা, তার ওপর টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। তবে র‍্যাঙ্কিংয়ের ব্যাপারটিকে মাথাতেই আনছেন না ২৫ বছর বয়সী এই চেক, ‘আমি আগে যা করেছি, সেটাই করব। এটা (র‍্যাঙ্কিং) আমার কাছে বড় ব্যাপার মনে হচ্ছে না। শুধু র‍্যাঙ্কিংয়ের জন্যও কোনো কিছু করতে চাই না।’ এ বছর ব্রিসবেন, দোহা, ইস্টবোর্নে জিতেছেন প্লিসকোভা। কিন্তু এবার জিততে না পারলে অন্য কেউ হয়ে যাবেন র‍্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর।

দুয়ে থাকা হালেপ কিন্তু মাথায় রেখেছেন র‍্যাঙ্কিং, ‘বিশ্বের এক নম্বর হওয়াটা বড় একটা ব্যাপার। তুমি কত ধারাবাহিক, সেটা প্রকাশ পায় এতে। এই জায়গাটা অর্জন করতে হয়। যদি যোগ্য হই, অবশ্যই জিতব এটি।’ ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে ইয়েলেনা ওস্তাপেঙ্কোর কাছে হেরে গিয়েছিলেন হালেপ। সেটি জিতলে প্রথম গ্র্যান্ড স্লামের সঙ্গে এক নম্বরেও উঠে আসতেন। সেই ব্যর্থতা এখনো তাড়ায় হালেপকে। সিনসিনাটি ওপেন জিতে এবার নিশ্চয় সেই হতাশা দূর করতে চাইবেন।

দারুণ ফর্মে থাকা সভিতোলিনা এ বছর তাইওয়ান, দুবাই, ইস্তাম্বুল, রোম ও সর্বশেষ গত সপ্তাহে টরন্টোয় টুর্নামেন্ট জিতেছেন। সেমিফাইনালের আগেই যদি প্লিসকোভা সিনসিনাটি ওপেন থেকে বিদায় নেন আর টুর্নামেন্ট জেতেন সভিতোলিনা, তাহলেই ইউক্রেনিয়ান এই তারকাই হবেন টেনিসের নতুন এবং ২৪তম রানি।

কারবার আর ওজনিয়াকির পথটা একটু লম্বা। এর জন্য নিজেদের ভালো খেলতে তো হবেই, চাইতে হবে টুর্নামেন্টে প্লিসকোভার দ্রুত বিদায়ও। এএফপি, টেনিসডটকম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

cccccccccccccccccc

ব্যাটসম্যানদের তিন চ্যালেঞ্জ

Sharing is caring!FacebookTwitterGoogle+Pinterestওয়েলিংটন, ক্রাইস্টচার্চ, হায়দরাবাদ আর গলের কথা ভুলে যান। এই চারটি টেস্টের ঠিক আগের ...